ভাবের ঘর, আড়ির ঘর-১৯

দেবব্রত কর বিশ্বাস
ক্যাঁচাল খুব বিচিত্র স্বভাবের ছেলে। গালে ব্রন।
অপমানে ঠোঁটকাটা। কাঁচাপাকা ঘাসে ময়লা জমে
খসখসে হয়েছে। কারোর সঙ্গে তার বনিবনা নেই।
সকাল সকাল উঠে পড়ে, খেলতে যায়...
অথচ খেলায় তার মন নেই বলেই শোনা যায়।
তাই মাঠের পাশে থাকা বাধ্য রেলিঙের মতো
সে ক্রমাগত বলের গুঁতো খায় আর যথাযথ
ঝনঝন করে ওঠে। তাকে নিয়ে আর পারা যায় না।
তাকে নিয়ে জলঘোলা হয়। নোংরা জলের ডুবোসিঁড়ি
সারা গায়ে শ্যাওলা মেখে অপেক্ষা করে বসে থাকে।
সব জেনেশুনেও ক্যাঁচাল আসে। আছাড় খায়
পুকুরের পাড়ে দাঁড়ানো স্নানদৃশ্যরা হাসাহাসি করে।
ক্যাঁচাল খিঁচিয়ে ওঠে, খুব জোর, যন্ত্রণায়

আপনার মতামত জানান