দুটি কবিতা

জগন্নাথদেব মন্ডল
(১) ডায়রী

হলদে পৃষ্ঠায় সময়ের গন্ধ
স্মৃতির নোনতা হাওয়া ঝাপটা মারে নাক- চোখ- মুখে..
আলো- আঁধার দিন ছিঁড়েখুঁড়ে যায়,
ক্লান্ত বাল্মীকিও যুদ্ধশেষের দিনলিপি লিখতেন উইঢিপি ভেঙে ভেঙে..
ওদিকে আনরিড তেরটা মেসেজ,
জমে আছে পঞ্চান্নটা নোটিফিকেশন..
আবার কান্নাচেপে কফিকাপে ডিপ্রেশন গুলি,উবু হয়ে বসি দিনযাপনের কাছে।

(২) চা- দোকান

বাঁশের মাচায় কয়েকজন খটখটে আর ভেজা মানুষ।
রক্ত- খুন- ধর্ষন নিয়ে ছেতরে পড়ে আছে বাসি খবরকাগজ।
দুচারটে শালিক রোদ থেকে কী যেন খুটে খায়।
গামলায় দুধ ফোটে টগবগ।
বর খেদানো দোকানির শাড়ির ফাঁকে ঝুলন্ত মাই।
ওর ছেলে ডুবে গেছিল কোনও এক বর্ষা বিকেলে।
মাটির ভাঁড়ে কালচে স্পর্শ তরল।
আঃ! তৃপ্তি শব্দে অলীক দুপুর ভেঙে চুর।

আপনার মতামত জানান