তিনটি কবিতা

বিশ্বজিৎ বেরা
নীল চাঁদ

হেমলকে ডোবানো নীল চাঁদ গ্রাস করে নিক আমায়।

অপেক্ষারত তোমার জন্য

কোনো এক নিবিড় সন্ধায় ,

আমাদের ঠোঁট সিক্ত হয় ।

ভালোবাসা রেণুর মতো গুঁড়ো গুঁড়ো হয়ে উড়ে যায় ।

আড়ষ্ট হয়ে দাঁড়িয়ে তোমার পাশে ,

অলীক সুখের আশায় ।।।



নিভৃতে যতনে

চূর্ণ বিচূর্ণ করে দাও এই মান অভিমানেরা খেলা,

মনখারাপের শহরে নামুক বসন্তের বেলা ।

স্মৃতিহীন প্রহরীরা গুনছে দিন,

নিশচুপ‌ মুছে যাওয়া স্বপ্ন রঙিন ।

সাক্ষী থেকো আজি এ সঙ্গোপনে,

ভালোবেসে রাখবো তোমায় নিভৃতে যতনে ।।।



বাহুডোর

অচেনা মানুষের ভিড়ে হারিয়ে গেলে তুমি।

খুঁজেছি তোমায় প্রতিনিয়ত ।

তোমার সন্দেহের পারদ ছুঁয়ে ছিল পাহাড় ,

ভিজেছি নিশিরাত একা একা ।

চোখের নোনাজল মিশেছে বৃষ্টির নোনাজলে ,

তবু তুমি আসনি।

কেটে গেছে বহু প্রহর

পাল্টেছে হাজার বসন্ত ।

আজ ফিরে এলে সব শূন্যতা ভেঙ্গে ।

বৃষ্টির হাত ধরে ।

সমস্ত অতীত পিছুটান নিঃশেষে মুছে দিয়ে।


ফিরে এলে তুমি আমার শীতলতার বাহুডোরে ।

আপনার মতামত জানান