তিনটি কবিতা

নীলাব্জ চক্রবর্তী
বাড়িবদল


একটা দীর্ঘ সার্কাস
বেরিয়ে আসছে চাদরের ভেতর থেকে
ম্যাগাজিনের দোকান থেকে
একটা কালো গাড়ি
ধোঁয়া আঁকতে আঁকতে সাদা পেন্সিল হয়ে যাচ্ছে
আর লিখে রাখছে
সাদা কাঠের বেঞ্চের ওইদিকটার নাম শালিনী
অথচ
শূন্যে ছুঁড়ে দেওয়া
শান্ত অক্ষরগুলো লুফে নিয়ে
কে দড়ি বেয়ে নেমে আসছে
বাড়ি ফুরিয়ে এলো
ছাদ ফুরিয়ে এলো
তবুও
কে ছাদে উঠে ডাকছে
অ্যালিসন অ্যালিসন বলে...


জানলা




একটা দ্বিভাষী জানলা
ফুটফুট করছে
ফ্রেম হয়ে পিছলে

বরফ কারখানার গায়ে জড়িয়ে যাওয়া
ফোটোজেনিক শব্দ

কথায় কথায়
মুদ্রা ঘষতে ঘষতেই
ছোট হয়ে আসছে
জন্মদিনের নীল বল


সকাল


একটা ছোট সকাল
ভাঁজ করে ফেলছে
ছড়ানো শীতাতপ
বদলে যাচ্ছে
আমাদের সহজ কবিতার যাতায়াত
কীভাবে একটা উত্থান থেকে
একটা ছোট সকালের হাত পা থেকে
আলাদা হয়ে যাচ্ছে
ক্যামেরা
হলদে বাড়ি
কর্নেলের জানলায় লাফিয়ে উঠছে
একটা দুটো শব্দ
কামড় ফিরিয়ে দিচ্ছে ভালবাসার দেওয়াল

আপনার মতামত জানান