দুটি কবিতা

অসিত ঘোষ



তোমার ছিমছাম
১.
মাটিটুকু হেরে গিয়ে ছড়িঘোরা রাস্তার পাশে
উড়ন্ত শিশির শুষে নেয় পোড়া ধোঁয়া
জলের রিদিম-মরা ঝিলপাড়
হারালো ডানার জড়ালো খেলায়
এক জ্বরো ফোকাস ছাড়া
কিছু নেই
শেষ পাতার মুখ ঝলক না লিখে
উল্টোনো লাটিম এঁকে
ফুটকিতে তোবড়ানো নিব

২.
গগলস-পরা সাঁতার জোয়ারের বাজনা মেখে
তোমাকে আয়েসের ভারি দিলে
পাল্টা ফিরোতে গিয়ে
(সে-ই অবিকল মাঝি-সামাল-সামাল হাসি)
চোখ পড়ে পাশের ঠোকরনো ছাদের কাকে
ভুরু কুঁচকোলে...
সেই কাক !
রয়ে গেছে
নীল গরাদে পৌঁছে দেয়ার ফরমাসে
তোমার ছিমছাম




ডাক

অন্য ফুলের বাস
তোমার অপেক্ষায় আজো
ফোটেনি
তোমাকে অদেখে শহর পুড়ে
কাজল করে পরে নেচে ওঠে রাণী
কামড়ায় পায়রার সাদা বুক
তার পাতার মহলের নিচে চোরা কুঠরিতে
লিঙ্গ বদলে নেয়
বদলে যায় লোম নখ
কুমীরের ঘ্রাণঅলা টুপির নিচে
ফর্দ কষে খাদ্যের
ফরসা বেলায় খুন ঝরে
কাণ্ডজুড়ে রাখা বাংলা অক্ষর উচ্চারণের

এইমাত্র তিনটি ভাই মোছা হল
একটি বাবা মোছা হল
একটি বোন
একটি...

বুকের ভেতর পাথর পাথর
ভীষণ ঘষায় আগুনের ফিনকি বেয়ে
তাপ ছুঁলে
মাথায় ঝড় পরে এস
অন্য ফুলের বাস
ফোটার অঢেল ইচ্ছে
তোমার হাত মুঠো কর

আপনার মতামত জানান