তানজিন তামান্না’র কবিতা

তানজিন তামান্না

অলংকরণ তৌসিফ হক


চন্দানুভব
... প্রতিসন্ধ্যায় শিমক্ষেতকে ভালবেসে

গোলাপী শিমক্ষেতের নিচে হোঁচট খায় সন্ধ্যা । চন্দনাকে ধরতে হুমড়ি খায়
ছাইপাসেরা । এইসব ভীমরতি চাখতে চাখতে, হাওয়া-পাল্টা হাওয়া গিলতে গিলতে
টা....ন টান খপ্পরবাজী ।

রাসায়নিক হয়ে উঠছে শিমফুলের প্রেমিক পতঙ্গ
        এসময় উদ্বাস্তু
কাল হয়ে ফেঁসে ফেঁসে যায় আলো-অন্ধকার
গৃহবন্দী




ধানসিড়ি

শীতকে ভেংচি কেটে ফিরবে কাঠগোলাপ । পুরাতন লাইব্রেরীর ধুলো ঝেঁড়ে উদ্ধার
হবে প্রিয় বই । উটকো লোকের ফিসফিসানি, চোখ বাঁকানীকে উপেক্ষা করে কবিতা
লিখবে খোলা মাঠ ...
সত্যি শেষ হবে পরাধীণ, প্রশ্নবিদ্ধ এসময় ?

... তবু অবরোধের একটু ফাঁকে স্বপ্ন কুড়োচ্ছিল দেবদারুর ছায়া । আর তার
মাথার উপর দু’ টো চিলছানা নিচ্ছিল ছোঁবিদ্যায় হাতেখড়ি ।

আবার কি ব্যবচ্ছেদ হবে কলমিলতার সন্তানদের ? আপনি কোথায় ফিরবেন ধানসিড়ির ছেলে ?

দৃশ্যান্তর

মচমচে রোদ তরতাজা দুপুরে লাফিয়ে লাফিয়ে চলে । এ দৃশ্যে দেয়ালের ছায়াটা
ঈষত বাঁকা । ছায়াটা ঘুম ভালবাসে ।

সবুজ পোকা অবিকল ঘাসেরই মত । ওদের পাশ কাটিয়ে বেসামাল পা পিষে ফেলে
ঘাসফুলের বেদম বিকাল । ঘাসফুল কার ছিল ? এদৃশ্যে কুয়াশা বিজয়ী, সুযোগমত
যাত্রা করে শরতের ভোরে ...

প্রেম-অপ্রেমের বিছানা

ব্যস্ত হয়ে যায় সন্ধ্যা
আড্ডা হয় আকাশের মাঠেে
একটা মাইগ্র্যান্ট ফুলের সাথে গল্প
তার ছিল ঝুল বারান্দা, স্নানের ঠান্ডা দুপুর
মল্লিকা ঝরে গ্যাছে
সে এখন শহরে গতরের দামে
বিক্রি করে বকুল
অ্যাবোরশনের দীর্ঘশ্বাস জেগে থাকে প্রেম-অপ্রেমের বিছানায়

আপনার মতামত জানান