তিনটি কবিতা

জয়শীলা গুহবাগচী
১।
চিঠি

একটা মোচড়ানো থেকে
পোড়া পোড়া মাঠ এল
ললিপপ এল
ঝামুরঝুমুর ফুলতোলা
সস্তা বিকেল এল
আর
টর্চের মায়পিয়া
পাকস্থলী বরাবর খুঁজে নিল
বদলের বাড়িঘর

খামবন্দি আগুন চলল লেটারবক্সে


২।
আয়না

ছাদের দিক থেকে হাঁটলে
জলে ভেজে চাঁদ
ধু ধু হয় বুকের কম্বল
মোবারক মিয়াঁ আজ মাঠ
মিয়াঁ কি মল্লার ঝরে
ছাদ থেকে সোজা
হাঁটতে হাঁটতে
জলা
একটা দরজা একা
একটা ছিটকিনি গম্ভীর
শীত হয়ে উঠছে গান
মিয়াঁ কি মল্লার ওড়ে
এই তো একফালি লিভার
ফোঁটা ফোঁটা জ্যোৎস্না ভেজা
কচুরিপানার লুকোচুরি
আয়না আয়না


৩।
তুমি

হেসে ওঠে
মাটি
যোগ যেখানে
তুমুল
একপাতা সবুজ রোদ
জড়িয়ে জড়িয়ে
এমন কচি
ধরতে গেলে
পুরোটাই
হাটখোলা
গাছতলা
পাশে সাইকেল
হৃদ মাঝারে...
এক ঝটকায়
ভেঙে পড়ে
দরিয়ার না
একাকার
সবুজ
হলুদ
মেটে
পানের পিক
অনায়াস

নিয়ে গেলে...
বেঁধে দিলে না
চুড়ো

আপনার মতামত জানান