তিনটি কবিতা

ঈশিতা ভাদুড়ী
বিবেকের কুশপুত্তলিকা

বিবেকের কুশপুত্তলিকা জ্বালিয়ে
হেঁটে যাই যখন
অমসৃন পথের দিকে আরও,
টের পাই
ভস্মস্তূপ থেকে উপচে পড়ছে
সংঘাত আর বিদ্বেষ।
টের পাই ভুল রেখাচিহ্নগুলি
ফেঁসে আছে বৃক্ষে ও পাথরে
বিবেকের কুশপুত্তলিকা জ্বালিয়ে তবুও
প্রতিপদে লেগে আছে
বিবেকের অশরীরি আত্মা
প্রতিপদেই বিবেকের আঁচড়।


শব্দ বদল
ইচ্ছে, ঢেউ, বসন্ত এই সব শব্দগুলি অভিধানের যেসব পৃষ্ঠায় ছিল সেই প্রতিটি পৃষ্ঠা ছিঁড়ে দিয়েছে কেউ। কে? ঈশ্বর? অন্য কেউ? তরঙ্গ, প্রেম, জ্যোত্স্নাঠ এই সব শব্দের পৃষ্ঠাও ছিঁড়েছে কেউ।
পরিবর্তে অন্ধকার, হায়না, রাত্রি এই সব শব্দগুলি বড় বড় অক্ষরে লিখেছে কেউ আমার ঘরের দেওয়ালে। কে? ঈশ্বর? অন্য কেউ? শীত, ভূমিকম্প, সুনামি এই সব শব্দগুলিও আমার ঘরে লিখেছে কেউ।



সম্পর্ক
ভুল শব্দ ব্যবহারে
কীভাবে যে ভেঙে যায় পাড় ,
কীভাবে যে এত নগ্নতা দাঁড়ায় ঘরে !
ভুল শব্দ প্রয়োগে
কীভাবে যে উপছে পড়ে নদীর জল ,
কীভাবে যে ভেঙে পড়ে বিশ্বাসের পাহাড়!
মাত্রাহীন বাক্যছুটে এইভাবে
মেরে ও মরে না থেকে
নীরবতা ভাল তবু।
সম্পর্ক শব্দটি
অজ্ঞাতবাসে যায় না তবে ।

আপনার মতামত জানান