তিনটি কবিতা

নীলাব্জ চক্রবর্তী
তাস


শেষ দৃশ্যে
কুয়াশার ভেতর      জন্মদিনের বোতাম
আর
একটা ওভারওয়েট ছায়া
ঠাণ্ডা রাস্তার ভেতর দিয়ে
তার মুখোশ কাঁপছে
তার অপেক্ষার নাম পীত রেখেছে কেউ...

অথচ                   বারবার আয়না দ্যাখার লোভ
যেখানে ধাক্কা খেয়ে ফিরে আসছে
খোসা উড়তে উড়তে
সেখানেই এই কবিতাটা
শুরু হওয়ার কথা ছিলো


কাঠামো বিষয়ক


কাঠামোর কথা বলতে বলতে

বরং

ওই লোহাগাছটার কথা আসুক
              ঝালাইকরের ফিরে যাওয়ার কথায়
অথচ রুলটানা বারান্দা
ক্রিয়া হারিয়ে
ক্যামোন
              গলে
              যাচ্ছে
একটা লং শটের দুপুর
ছবি বদলে বদলে
সবসময় একটাই প্যারাডক্স
আপেলের চামড়ায় মিশে রইলো...


রাস্তাটা


লেস বসা ঊরু
তুলে আনছে যাতায়াতের বহু সূত্র
মানে তার সুতোয়পাতায়
                      কোঁচকানো স্থানীয় দুপুরে
                      স্বাদুকে লিরিক ডাকার বেলায়
আয়নার ভেতর ঢুকে যাচ্ছে কেউ
য-ফলায় গড়িয়ে আসা
গোড়ালি ফুলতে ফুলতে
মাধ্যাকর্ষণের গুণ প্রতিদিন
কাছে যাওয়া আর দূরে আসা
নিয়ে
পরিযায়ী শব্দটায়
কিছুতেই কম্যুনিকেট করতে পারছে না...

আপনার মতামত জানান