তিনটি কবিতা

রাজর্ষি মজুমদার
ছাদে

তিমিরের মধ্যে
কথা হচ্ছিল একটি ধূলো, দাঁড়
          তার পায়রা নিয়ে
দাঁড় বলছিলো নতুন
পায়রা বলছিল ওড়া
ধূলো কিছু বলছিলনা।

ছাদ উড়ে উড়ে -
তুমি যেভাবে আশ্চর্য হয়ে ওঠো।
দানা হয়ে ওঠো পায়রার।

সেই কিছু
শামিয়ানা বদলিয়ে দিচ্ছে দাওয়ার
                 স্থাপত্য বদলিয়ে দিচ্ছে

আর তোমার পায়রা,
দানা খেতে খেতে ঝাঁট নিচ্ছে বাতাসের।





পাত্রের থেকে ঢলে

হায় বলে চলে যাচ্ছে
তার গাঢ় নীল
সমস্ত গুড়ের গুজিয়া
এই শীত ধরার ট্রেনে।
বুলেটের আগেই হাওয়া বদলিয়ে,
পরের জন্মে রাখা হাম -
খাওয়া দিচ্ছে।
এক মিল হয়ে যাওয়ায়

সেলাম জানাও ইরম
কদমবুসি

রাতের নয়ানজুলি নাচুক
ভাঙা ভাঙা বাগেশ্রী ধরা।
শুধু তোমার কথায় ...
                        এই জাঁম
ঘুমের আদলে নেমেছে।








অক্টোবর - ৩


তার টিউন করার মাঝে
শরীর ঢুকে গেল
আমাদের কার্তিক ছেয়ে যাচ্ছে -
শামিয়ানায়

দিল - এ - জান থেকে
মরুবিহাগে
এলো এলো পায়েল বাজে যেন।

হে প্রেমিক,
তোমাতে আসবো বলে
গুমরে গুমরে আলো জমা করছি।

আপনার মতামত জানান