তিনটি কবিতা

রঙ্গীত মিত্র
বিপদ
বিপদ যেখানে বন্ধু রঙ
বিপদ যেখানে পাশের গলি।
সেখানে আমার দোকান সেতু ;
তবুও কেনই আমি যে বলি
এসব, নিজেই জানিনা তাই
বিপদ যেখানে ভরসা দিন
বিপদ যেখানে প্রাচীন প্রেম
চালাকি,বোকামি গিলেছে মদ ।
সেখানে ঘৃণার জলসা লোভ
ট্রেনের চাকার উতলা সুতো
বিপদে,আমার ছাড়েনি হাত।



আঘাতের নিশান


সবাই মুখোশের ভিতর আটকে
মাছের আড়ত।
যেখানে মাছরাঙারাও মাচা থেকে
জীবন ছিনিয়ে যায়...
আমি তবু টিনটিনের মতো...
যদিও কার্টুন হয়ে যাইনি ;
তবু বন্ধুরা পিছনে শত্রুর মতো
তাদের তো ক্ষতি করিনি আমি
তাহলে কেন ভালো মানুষেরা
এতো আঘাত পায়?
আঘাতের নিশান জানি না বলে,কিছু বলতে পারিনা।


জ্যোতিষি

আয়নায় নিজেকে দেখেছি।
ছবিতে নিজেকে দেখেছি।
কিন্তু তোমার চোখের দিকে তাকাতে
গিয়ে
অন্যনারীরা চলে আসে।
যদিও অন্য নারীদের মতো তোমাকেও
প্রিয়তম লাগলেও
জীবনটা যে ক্যাডবেরির মতো।
একটা খেলে,আর একটা খেতে ইচ্ছে করে।
কিন্তু তাও আমি নিজেকে বদলাচ্ছি না।
নিজেকে বদলাতে পারিনি বলেই
নাকি কিছুই করতে পারছিনা।
সামনের অলিম্পিকে লং জাম্পে আমিই বুঝি,পদক আনবো !
এইরকমই বলেছেন,জ্যোতিষি।

আপনার মতামত জানান