বসন্ত বিদায়

অবভাস
বসন্ত বিদায়ের পালা। আনাচে কানাচে যুদ্ধের আনাগোনা। তাণ্ডবের আশঙ্কায় ঘরে ঘরে অশনি সংকেত। বর্গীদের উচ্ছ্বাস নিয়ে হামলে পড়ে উড়িয়ে নিয়ে যেতে চাই প্রতিবাদের খড়কুটো। বারন আর শাসনের চোখরাঙ্গানিতে ত্রস্ত শরীর জুড়ে শীতল স্বেদবিন্দুর আনাগোনা। খতমের খেলায় ভাগ না নিলেও নির্বাক সাক্ষী অনিবার্য অবদান।
জমির বুক জুড়ে ছড়িয়ে আছে কচি আমের বোলের মত নিথর শরীরেরা। দুর্নীতি দমন আর সুসহন ঝরে স্থব্ধ আন্দোলনের স্বর। সারহীন (সার দয় য়ে শুন্য র) কালশিটে সারা শরীর জুড়ে। খানিক দূরে প্রাতিষ্ঠানিক শিকড় উপড়ান হয়েছে আর তার ডালপালা ছড়িয়ে আছে রাস্তা জুড়ে। ছড়িয়ে আছে শরণার্থী পাখিদের ঘরগুলো। নগরোন্নয়ন সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে ছোট সুখিকোনের স্থান বস্তি আখ্যান পায়। তাই প্রতি মুহূর্তে স্থান হারাই...
পরিযায়ী জীবনে শাসকের কাল বৈশাখী আসে বারবার। প্রতিবার।

আপনার মতামত জানান