অভীকের দুটি বইয়ের রিভিউ

সুবোধ ভট্টাচার্য

 




অভীকের গদ্যের সঙ্গে আমার পরিচয় এক দশক আগে, যখন নহবতে অভীকের গল্প প্রথম প্রকাশ করেছিলাম। আধুনিক, স্মার্ট গল্প বলার ধরণ, শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত গল্পে টেনে রাখার ক্ষমতা অভীকের আছে। তারপরে বেশ কয়েকবার অভীকের গল্প পড়েছি আমি কিন্তু সেভাবে একটা বই ধরে পড়া হয় নি কখনই।
“বিশ্বমিত্র উপাখ্যান” এবং “অনিন্দ্য কাহিনী” এই দুই বই যখন আমার কাছে অভীক রিভিউ করার জন্য পাঠাল, তখন স্বাভাবিকভাবেই খুশি হয়েছিলাম। এ যুগে বাংলা সাহিত্যের চর্চা করছে নতুন প্রজন্মের ছেলে মেয়েরা,এ বড় সুখের কথা। দুইটি বইই এক ঝলক দেখে প্রচ্ছদ ভাল লেগে গেল। দুটি বইয়ের প্রচ্ছদই নীল রঙের ওপরে করা, দুটি বইয়ের প্রচ্ছদই করেছেন শ্রীমান তৌসিফ হক মহাশয়। অভীকের মত তৌসিফও এ যুগের ছেলে, তার কাজের ধরণও আধুনিক, দৃষ্টিনন্দন এবং চিত্তাকর্ষক।
পড়া শুরু করলাম বিশ্বমিত্র উপাখ্যান দিয়ে। অভীকের মত বিশ্ব মিত্রও আধুনিক যুগের লেখক, সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং করেন, এবং আদ্যোপান্ত একজন দ্বিধাগ্রস্থ ব্যক্তিত্ব। এই সময়ের লেখা লেখির জগতের বেশ কিছু গূঢ় তত্ত্ব অভীক এই উপন্যাসের মাধ্যমে বলেছেন। শুরু থেকে উপন্যাসটি পড়তে পড়তে কোথাও কোথাও থমকে দাঁড়াতে হয়, ভাবতে হয়, কোথাও গিয়ে কি আমাদের সম্পর্কেরা সময়ের সঙ্গে সঙ্গে জটিল থেকে জটিলতর হয়ে উঠছে না? বিশ্ব মিত্রেরা এই সময়ের চরিত্র যারা নতুন প্রযুক্তির সাহচর্যে লেখালেখি করছেন, সম্পর্কে জড়াচ্ছেন। শুরুতে খানিকটা ভয় ছিল বিশ্বমিত্রের মধ্যে হয়ত নীললোহিত খানিকটা প্রভাব বিস্তার করবেন, তবে উপন্যাস যত এগিয়েছে, তত সে ভয় মুক্ত হয়েছি এ কথা নির্দ্বিধায় বলতে পারি। অভীকের বিশ্ব মিত্র সম্পূর্ণ মৌলিক এবং প্রেমিক এক চরিত্র, এ উপন্যাস একটানা পড়ে ফেলা যায়, ভাষার গতি, সারল্য এবং ঝরঝরে গদ্য অভীকের সম্পদ।


আরেকটি বই অনিন্দ্য কাহিনী আমাকে এক চমৎকার পাঠ অভিজ্ঞতা দিয়েছে। সম্পূর্ণ বইটিই দুই বন্ধুর ঘটনা নিয়ে বর্ণিত, অভীক নিজেই বলেছে এই যুগে একজন ভাল বন্ধু পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। কথাটা খুবই সত্যি। আজ থেকে কুড়ি তিরিশ বছর আগেও নিঃস্বার্থ বন্ধু পাওয়া অসম্ভব ছিল না, নিউক্লিয়ার ফ্যামিলির যুগ ছিল না সে সময়টা। যত সময় এগোচ্ছে, মানুষ স্বার্থমগ্ন হচ্ছে, এই সময়ে দাঁড়িয়ে অনিন্দ্যর মত একজন পাগল, খামখেয়ালী রোম্যান্টিক বন্ধু পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার। গল্পগুলো কোনটাই অতীদীর্ঘ না, কিন্তু অত্যন্ত সুখপাঠ্য। বন্ধুত্বের আখ্যান বরাবরই অনেক স্মৃতি ফিরিয়ে আনে, বলা বাহুল্য অনিন্দ্য আমাকে সে রসে বঞ্চিত করে নি। পড়তে পড়তে আমারও কলেজ জীবনের বিভিন্ন ঘটনার কথা মনে পড়ে যাচ্ছিল। অনিন্দ্য কাহিনী প্রথম পর্ব দেখে যথেষ্ট আশান্বিত হলাম, আশা করব পরের পর্বও যথেষ্ট সম্ভাবনাময় হবে। প্রতিটি গল্পই হাস্যরসের উদ্রেক করে, এবং পড়তে পড়তে চোখের কোণ কখনও কখনও একটু অশ্রুসিক্তও করে। অবশ্যই সে অশ্রু সুখের অশ্রু। অভীক এ সময়ের লেখক, আধুনিক, বাহুল্য বর্জিত লেখক, সব লেখাতেই যথেষ্ট মুন্সীয়ানার ছাপ রেখে যায়।
এই কঠিন রসকষহীন সময়ে অনিন্দ্য কাহিনীর মত গল্পদের প্রয়োজন, পড়তে পড়তে বারে বারেই এ কথা মনে হয়ে যায়।
................
বিশ্বমিত্র উপাখ্যান, আদরের নৌকা, মূল্য ১৬০টাকা
অনিন্দ্য কাহিনী, বাহার, মূল্য ২০০ টাকা


অভীকের বই কেনার জন্য এই লিংকে ক্লিক করুন

আপনার মতামত জানান